1. amarcampus24@gmail.com : admin2020 :
বহিরাগতদের ধরতে পুলিশি অভিযান - AmarCampus24
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৯ অপরাহ্ন

বহিরাগতদের ধরতে পুলিশি অভিযান

আমারক্যাম্পাস/ঢাকা প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২০

নির্বাচন সামনে রেখে বহিরাগতদের ধরতে বিশেষ অভিযানে নেমেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাত থেকে প্রাথমিকভাবে এ অভিযান শুরু হয়েছে। পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, ঢাকার প্রবেশপথ, বস্তি, আবাসিক হোটেল ও মেসগুলোতে অভিযান চলবে। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণ।

সময় যত ঘনিয়ে আসছে, নির্বাচনী প্রচারাভিযান ততই জমে উঠছে, একই সঙ্গে বাড়ছে উত্তেজনাও। প্রায় প্রতিদিনই কারও না কারও বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচন সামনে রেখে বিএনপি বহিরাগতদের এনে ঢাকায় জড়ো করছে। এদের মধ্যে চিহ্নিত সন্ত্রাসী, দাগি সন্ত্রাসীরাও রয়েছে। খবর আছে, নির্বাচনের দিন কেন্দ্রে পাহারার নামে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা পরিবেশ বিঘ্নিত করতে পারে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে বিএনপির প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেন, বিএনপি নয়, বাইরে থেকে লোক এনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে আওয়ামী লীগ। কারণ, আওয়ামী লীগ যা করে, তা আগে থেকে ঘোষণা দিয়ে করে। তিনি বলেন, যেসব কেন্দ্রে বিএনপির ভোট বেশি, সেসব কেন্দ্র বহিরাগতদের দিয়ে দখল করার চেষ্টা করা হতে পারে। আর যেসব কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের ভোট বেশি, সেসব কেন্দ্রে সাধারণ ভোটারদের ঠেকাতে কৃত্রিম লাইন তৈরি করা হবে। পুলিশের অভিযানের সমালোচনা করে তিনি বলেন, বহিরাগতদের ধরার নামে যেন বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার ও হয়রানি করা না হয়।

একই ধরনের মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তরে বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল। তিনি বলেন, ‘অতীতে এ ধরনের অভিযানে বিএনপির নেতা-কর্মীদেরই লক্ষ্য করা হয়েছে। এবারও সে রকম আশঙ্কা করছি। এমন অভিযান শুধু অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে হওয়া উচিত, কোনো দলের কর্মীদের বিরুদ্ধে নয়।’

বিএনপির নেতারা বলছেন, অন্যবারের মতো এ নির্বাচনেও ক্ষমতাসীন দল ভোটার উপস্থিতি কমানো এবং বিএনপির এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে না দেওয়ার পুরোনো কৌশল নেবে। এমনও হতে পারে, ভোটকেন্দ্রের বাইরে অকারণে মারামারি বাধিয়ে দিতে পারে।

জানতে চাইলে পুলিশের সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মোখলেসুর রহমান বলেন, নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাজ হলো, মানুষ যেন অশান্তি, বিবাদ ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে পারেন, তা নিশ্চিত করা। অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ যা-ই উঠুক না কেন, পুলিশের দায়িত্ব তা তলিয়ে দেখে নিরপেক্ষ অবস্থান থেকে ব্যবস্থা নেওয়া।

আমার ক্যাম্পাস/ঢাকা

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর