1. amarcampus24@gmail.com : admin2020 :
উচ্ছ্বাস-উল্লাস আর বেদনা মধুর র‌্যাগ ডে-(ইবি) ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ - AmarCampus24
শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন

উচ্ছ্বাস-উল্লাস আর বেদনা মধুর র‌্যাগ ডে-(ইবি) ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ

আমার ক্যাম্পাস ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: বুধবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২০
উল্লাসে মাতোয়ারা শিক্ষার্থীরা

সবার পরনে টি-শার্ট। আবিরে মুখ রঙিন। কেউ রঙ নিয়ে দৌড়াচ্ছে বন্ধুকে মাখাতে। কেউ সেলফি, ছবি তোলা নিয়ে ব্যস্ত। কেউবা আবার প্রেমিকার শাড়ীর আচল ঠিক করে দিচ্ছে। বেদনা ভরা বিদায়েও যেন এক চিমটি আনন্দের অদম্য প্রচেষ্টা।
‘সময় ও স্রোত কারো জন্য অপেক্ষা করে না।’দেখতে দেখতে পড়াশোনা শেষ। এবার বিদায়ের পালা। এইতো সেদিন তারা একসাথে আড্ডা, খুনসুঁটি, এ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে দৌড়াদৌড়ি, ক্লাস, পরীক্ষা নিয়ে ব্যস্ত সবাই। হাজারো ব্যস্ততার মধ্যেও আড্ডাটা জমতো বেশ। কোন একদিন কফির কাপে চুমুক দেয়ার সময় হয়তো মনে পড়ে যাবে মান্না দে’র সেই বিখ্যাত গান ‘কফি হাউজের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই’। সেদিন কফি খাওয়া হবে ঠিকই কিন্তু আড্ডাটা আর জমে উঠবে না।

র‍্যাগ ডে! স্নাতক কিংবা গ্র্যাজুয়েট পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের কাছে শব্দটি একটি আবেগ-অনুভূতির নাম। র‍্যাগ ডে’র আরেক নাম বিদায়ের ঘন্টা। স্নাতক (সম্মান) শেষে এই দিনটি পালন করে থাকে শিক্ষার্থীরা। দিনটির মাধ্যমে বিদায়ের ঘন্টা বাজলেও সবাই মেতে উঠে আনন্দ, উচ্ছাস, হৈ-হুল্লোড়ে। কেউ বা আবার সবার থেকে আড়াল হয়ে মুখ লুকিয়ে কাঁদে।

ঠিক তেমনি বেদনাভরা দিনে ‘র‍্যাগ ডে’ উপলক্ষে আনন্দ, উচ্ছাস, হৈ-হুল্লোড়ে মেতে উঠেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯ টায় ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ব্যাচ ভিত্তিক সংগঠন ‘আলোড়িত ৩০’ এর আয়োজনে সম্মিলিতভাবে এক আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে তারা। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কেন্দ্রীয় মিলনায়তনের সামনে মিলিত হয়।
পরে বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে অনুষদ ভবন সংলগ্ন বটতলে কেক কাটা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর ড. সাইদুর রহমান, বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. রেজাউল করিম, ড. বাকী বিল্লাহ বিকুলসহ ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে বেলা সাড়ে ১২ টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে ‘আলোড়িত ৩০’-এর আয়োজনে কনসার্ট শুরু হয়। কনসার্টে মঞ্চ মাতায় ব্যান্ডদল এসেস, বাংলা ফাইভ, প্রাঙ্গন, আভাস এবং রংরুট। গিটার আর সুরের মূর্ছনায় ক্যাম্পাসের ১৭৫ একর আজ যেন অন্য আবেশে মন মেতেছিল। শিল্পীদের তালে তালে গান প্রেমীদের কন্ঠও আজ যেন সুরের মূর্ছনায় হারিয়ে গিয়েছিল।

আমার ক্যাম্পাস/ঢাকা/আর এম

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর